হেডফোন ব্যবহার কেন ক্ষতিকর – জানুন বিস্তারিত

আমাদের দৈনন্দিন জীবনে যেকয়টি গ্যাজেট নিয়মিত আমাদের দরকার হয় তার মধ্যে অন্যতম হচ্ছে হেডফোন। মোবাইল বা কম্পিউটার আছে কিন্তু হেডফোন থাকবে না তা তো হতে পারে না। কিন্তু হেডফোন যেমন প্রয়োজনীয় এবং উপকারী তেমনি এর কিছু খারাপ দিক রয়েছে। কেননা এর একটা পরিমিত ব্যবহারে আমাদের জন্য যথেষ্ট। কিন্তু এর অতিরিক্ত ব্যবহার আবার খারাপ। কেননা অতিরিক্ত ব্যবহারের ফলে কানের ভেতর সমস্যা সৃষ্টি হয়। তাই হেডফোন যেমন উপকারী তেমনি ক্ষতিকর। তাই হেডফোনের ফলে আমাদের যে ক্ষতি হয় তা অবশ্যই জানা অত্যাবশ্যক। চলুন এ পর্যায়ে জেনে নেয়া যাক হেডফোন ব্যবহারের ফলে আমাদের কি কি ক্ষতি হতে পারে:

১. হেডফোন অতিরিক্ত ব্যবহার করলে কানের ভেতর তাপমাত্রা বৃদ্ধি পেতে থাকে এবং কানের ভেতর ঘাম জমতে শুরু করে। এটি থেকে ব্ল্যাকহেড বা অ্যাকনে জন্ম নেয়।

২. এটি দীর্ঘ সময় ব্যবহার করলে ভার্টিগোর মতো সমস্যা সৃষ্টি হতে পারে। এতে করে বমিবমি ভাব, মাথা ঘোরা এবং ঝিমঝিম ভাব অনুভব হয়।

৩. নিজের হেডফোন অন্যের সাথে শেয়ার করার ঠিক না। এতে করে সহজেই ইনফেকশন একজন হতে অন্যজনে প্রবেশ করে।

৪. এটি অতিরিক্ত ব্যবহার করলে শরীরের ভেতর রেডিও ফ্রিকোয়েন্সি রেডিয়েশনের প্রভাব পড়ে। এটি খুবই ক্ষতিকর।

৫. হেডফোন দিয়ে শুনলে ৬০% এর কম ভলিউম দিয়ে শোনা উত্তম। এর বেশি বাড়ানো কখনোই উচিত নয়।

৬. ১০০ ডেসিবল এবং তার অধিক শব্দে যদি প্রতিদিন ১৫ মিনিট শুনলে কানে অনেক ক্ষতি হয়। আর হেডফোনে সর্বোচ্চ ভলিউমে শুনলে এই ক্ষতি হয়।

৭. একটানা এক ঘন্টা হেডফোন কানে রাখলে এবং কিছু শুনলে কানে স্থায়ী সমস্যা হতে পারে। এতে শ্রবণ ক্ষমতি ধীরে ধীরে কমে যায়।

৮. রাস্তায় হাঁটার সময় হেডফোন ব্যবহার না করাই উত্তম। কেননা সেসময় হেডফোনের শব্দের জন্য বাহিরের অন্যান্য শব্দ ঢাকা পড়ে। ফলে সহজেই দুর্ঘটনার কবলে পড়ে যায়।

হেডফোন যদিও আমাদের অনেক কাজ সহজ করে দিয়েছে। কিন্তু হেডফোনের অতিরিক্ত ব্যবহার আমাদের জন্য অবশ্যই ক্ষতিকর। তাই হেডফোন ব্যবহার করুন অবশ্যই সতর্কতা অবলম্বন করে এবং নিয়ম মেনে চলুন। এতে করে আপনি সুস্থ থাকতে পারবেন এবং কানকেও ভালো রাখতে পারবেন।

About Md Sanuar Mahmud

Nothing special

Check Also

ঘাড় ব্যথার কারণ ও প্রতিরোধের উপায়

ঘাড় ব্যথার কারণ ও প্রতিরোধের উপায়

আমাদের দৈনন্দিন যত সমস্যা রয়েছে তার মধ্যে মধ্যে ঘাড় ব্যথা অন্যতম। কিন্তু এটি শুধু মাত্র …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *