সিঙ্কহোল কি জেনে নিন বিস্তারিত

আমাদের পৃথিবীটা অনেক সুন্দর। কিন্তু এই পৃথিবীতে কখনো প্রকৃতির সাথে চ্যালেঞ্জ নিতে হয় না। এর আগেও এমন অনেক রেকর্ড আছে। মানুষ প্রকৃতিকে উপেক্ষা করে কাজ করতে গিয়েছে কিন্তু উপরওয়ালা সহ্য করেনি। তাই প্রকৃতির তার প্রতিশোধ আপনার আপনি নেয়। কিন্তু মাঝে মধ্যে প্রকৃতি একটু বেশিই খারাপ করে থাকে। যার মধ্যে বর্তমান সময়ের সিঙ্কহোল একটি। বিশ্বের বিভিন্ন দেশে বিভিন্ন স্থানে হঠাৎ ভূমি দেবে যাওয়া বা বিশাল গর্ত সৃষ্টি হতে দেখা গিয়েছে। আজ এই সিঙ্কহোল নিয়েই আমাদের আলোচনা। চলুন শুরু করা যাক:

* সিঙ্কহোল কি?
– সিঙ্কহোল হচ্ছে প্রকৃতিতে সৃষ্টি হওয়া হঠাৎ কোনো বিশালাকার এক দানবীয় গর্ত। মূলত এর কোনো নির্দিষ্ট স্থান নেই। যেকোনো জায়গায় এই সিঙ্কহোল তৈরি হতে পারে।

* সিঙ্কহোল কেন তৈরি হয়?
– আসলে সিঙ্কহোল এমনি এমনি তৈরি হয় না। যখন বৃষ্টি মাটিতে পড়ে তখন বৃষ্টির পানিগুলো মাটির নিচে একটি নির্দিষ্ট স্তরে গিয়ে জমা হয়। আর সেই পানিগুলো বিভিন্ন সময়ে বিভিন্নভাবে উত্তোলন করা হয়। আর সেই উত্তোলন করার ফলে সেই স্থানে মানে মাটির নিচের সেই স্থানে এক ফাঁকা জায়গা তৈরি হয়। আর এর ফলে মাটির উপরের অংশের ওজন বেশি হয়। আর সেই উপর এবং নিচ্ছি উভয় জায়গায় ওজনের তারতম্য ঘটে। কোনো ব্যালেন্স থাকে না। তখন এই জায়গায় ভূমিধ্বস হয় এবং বিশালাকার একটি দানবীয় গর্ত তৈরি হয়ে থাকে।

এছাড়াও মাটির নিচে বিভিন্ন স্থানে রয়েছে চুনাপাথর, লবনের স্তর, পাথর, বালি ও শিলা। এগুলো যেখানেই বেশি পরিমানে থাকে সেখানেও সিঙ্কহোল তৈরি হতে পারে। কেননা আমরা সবাই জানি যে ভুগর্ভস্থ পানির দ্বারাই মূলত খনিজ পদার্থ দ্রবীভূত হয়ে থাকে। আর যখন শিলা দ্রবীভূত হয় তখন মাটির নিচে ফাঁকা জায়গা বৃদ্ধি পেতে থাকে। আর সেইসব ফাঁকা স্থানগুলো মাটির উপরের ভার সহ্য করতে পারে না। তখন এখানে ভূমিধ্বস শুরু হয় এবং সিঙ্কহোল সৃষ্টি হয়।

সিঙ্কহোল মূলত কয়েক ফুট থেকে কয়েকশো ফুট পর্যন্ত হয়ে থাকে। আর এটি একদিনে তৈরি হয় না। এটি তৈরি হতে কয়েক দশক থেকে শুরু করে কয়েক শতাব্দী পর্যন্ত লেগে যায়। ইতিমধ্যেই বিভিন্ন বড় বড় দেশগুলোতে এই সিঙ্কহোল তৈরি হয়েছে এবং এটি এখন সবচেয়ে বড় চিন্তার কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে।

About Md Sanuar Mahmud

Nothing special

Check Also

EngineersThought Thumbnail

জানুন পিসার হেলানো মন্দির বিষয়ে

পৃথিবীর অন্যতম সবচেয়ে সুন্দর একটি দেশ হচ্ছে ইতালি। ইতালি শহরে রয়েছে অনেক নিদর্শন। আপনি নিশ্চয়ই …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *