ব্ল্যাকহোল কি এবং কেন হয়?

ব্ল্যাকহোল হচ্ছে পৃথিবীর মানুষদের কাছে এক মহাবিস্ময়ের নাম। একে যদি দানব বলা হয় তা খারাপ হবে না। একে শুধু ব্ল্যাকহোল বলেই যে মানুষ চিনে তা কিন্তু নয়। এটিকে কৃষ্ণগহ্বর বলেও চিনে থাকে মানুষ। এটি মহাকাশের এমন একটি স্থান জুড়ে রয়েছে যার মাধ্যাকর্ষণ শক্তি অনেক প্রখর। শুধু প্রখরই না এতটাই শক্তিশালী যে কোনো কিছুই এর হাত থেকে পালাতে পারে না।‌ শুনলে হয়তো অবাক হবেন আলোক রশ্মিও এর কবল থেকে রেহাই পায় না। পৃথিবীর থেকে অনেক দূরে এটি অবস্থিত। প্রায় ৫০ কোটি ট্রিলিয়ন কিলোমিটার দূরে এটি অবস্থিত। এছাড়াও এর ভরের পরিমাণ অনেক বেশি। এটির ভর সূর্য থেকে প্রায় ৬৫০ কোটি গুণ বেশি হয়ে থাকে।

এমন একটা সময় ছিলো যখন বিজ্ঞানীদের এই ব্ল্যাকহোল নিয়ে কোনো ধারণাই ছিলো না। তবে এর সম্বন্ধে প্রথম ধারণা প্রদান করেন ভূতত্ত্ববিদ জন মিচেল। তিনি বলেন ব্ল্যাকহোল হচ্ছে বিপুল পরিমাণ ভরবিশিষ্ট বস্তু যার প্রভাবে আলোক তরঙ্গ পর্যন্ত পালাতে পারে না। এছাড়াও ১৭৯৬ সালে বিখ্যাত গণিতবিদ পিয়েরে সিমন ল্যাপলেস তার একটি বইতেও একই তথ্য বা মতবাদ প্রদান করেন।

সাধারণত কোনো একটি তারা যদি মারা যায় তবে সেটি থেকে জন্ম নেয় কৃষ্ণগহ্বর। সাধারণত কোনো একটি নক্ষত্রের জ্বালানি যদি শেষ হয়ে যায় তখন এর মৃত্যু ঘটে থাকে। তবে যতক্ষণ পর্যন্ত এর ভেতর হাইড্রোজেন গ্যাস থাকে ততক্ষণ অবধি এর ভেতরে নিউক্লিয়ার বিক্রিয়া চলমান থাকে। আর যখন এর‌ হাইড্রোজেন শেষ হয়ে আসে‌ তখন এর কেন্দ্রীয় মূলবস্তু সংকুচিত হয়ে যায়। আর তখন একটা তারা মৃত্যু ঘটে। ব্ল্যাকহোলের ভেতরে রয়েছে শক্তিশালী এক মহাকর্ষীয় শক্তি। আর প্রতিটি ব্ল্যাকহোলের ভেতরে চারদিকে একটি সীমানা রয়েছে আর যার জন্য এর ভেতর কেউ একবার ঢুকলে আর বেরিয়ে আসতে পারে না। আর এই নিয়মে মহাকাশে যুগ যুগ ধরে মহাবিষ্ময় হয়ে রয়েছে এই ব্ল্যাকহোল।

তবে ব্ল্যাকহোলকে নিয়ে ভয় আপনি পৃথিবীর বাইরে গেলেই পেতে পারেন। কেননা এটা পৃথিবী থেকে অনেক দূরে। আর এটি কোনো তারা, চাঁদ বা গ্রহকে নিজের শিকার বানাতে পারে না। আর যার জন্য পৃথিবী কখনোই এই ব্ল্যাকহোলের শিকারে পরিণত হবে না। অতীতেও এই ব্ল্যাকহোল আমাদের পৃথিবীর কোনো ক্ষতি করতে পারেনি তেমনি ভবিষ্যতেও এটা আমাদের ক্ষতি হয় এমন কিছু বয়ে আনবে না।

About Md Sanuar Mahmud

Nothing special

Check Also

EngineersThought Thumbnail

জানুন পিসার হেলানো মন্দির বিষয়ে

পৃথিবীর অন্যতম সবচেয়ে সুন্দর একটি দেশ হচ্ছে ইতালি। ইতালি শহরে রয়েছে অনেক নিদর্শন। আপনি নিশ্চয়ই …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *